সূরা আলাক

সূরা আলাক

সূরা আলাক

بِسمِ اللَّهِ الرَّحمٰنِ الرَّحيمِ

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু

[1] اقرَأ بِاسمِ رَبِّكَ الَّذى خَلَقَ

[1] ইক্বরা বিস্মি রব্বিকাল্লাযী খলাক্ব্।

[1] পাঠ করুন আপনার পালনকর্তার নামে যিনি সৃষ্টি করেছেন

[1] Read! In the Name of your Lord, Who has created (all that exists),

[2] خَلَقَ الإِنسٰنَ مِن عَلَقٍ

[2] খলাকাল্ ইন্সা-না মিন্ ‘আলাক্।

[2] সৃষ্টি করেছেন মানুষকে জমাট রক্ত থেকে।

[2] He has created man from a clot (a piece of thick coagulated blood)

[3] اقرَأ وَرَبُّكَ الأَكرَمُ

[3] ইক্ব্র অ রব্বুকাল্ আকরমু।

[3] পাঠ করুন, আপনার পালনকর্তা মহা দয়ালু,

[3] Read! And your Lord is the Most Generous,

[4] الَّذى عَلَّمَ بِالقَلَمِ

[4] ল্লাযী ‘আল্লামা বিল্ক্বলামি।

[4] যিনি কলমের সাহায্যে শিক্ষা দিয়েছেন,

[4] Who has taught (the writing) by the pen.

[5] عَلَّمَ الإِنسٰنَ ما لَم يَعلَم

[5] ‘আল্লামাল্ ইন্সা-না মা-লাম্ ইয়া’লাম্।

[5] শিক্ষা দিয়েছেন মানুষকে যা সে জানত না।

[5] He has taught man that which he knew not.

[6] كَلّا إِنَّ الإِنسٰنَ لَيَطغىٰ

[6] কাল্লা য় ইন্নাল্ ইন্সা-না লাইয়াতগ য়।

[6] সত্যি সত্যি মানুষ সীমালংঘন করে,

[6] Nay! Verily, man does transgress (in disbelief and evil deed).

[7] أَن رَءاهُ استَغنىٰ

[7] র্আরয়াহুস্ তাগ্না-।

[7] এ কারণে যে, সে নিজেকে অভাবমুক্ত মনে করে।

[7] Because he considers himself self-sufficient.

[8] إِنَّ إِلىٰ رَبِّكَ الرُّجعىٰ

[8] ইন্না ইলা- রব্বির্কা রুজ‘আ-।

[8] নিশ্চয় আপনার পালনকর্তার দিকেই প্রত্যাবর্তন হবে।

[8] Surely! unto your Lord is the return.

[9] أَرَءَيتَ الَّذى يَنهىٰ

[9] আরয়াইতাল্লাযী ইয়ান্হা-।

[9] আপনি কি তাকে দেখেছেন, যে নিষেধ করে

[9] Have you (O Muhammad (SAW)) seen him (i.e. Abû Jahl) who prevents,

[10] عَبدًا إِذا صَلّىٰ

[10] ‘আব্দান্ ইযা-ছোয়াল্লা-।

[10] এক বান্দাকে যখন সে নামায পড়ে?

[10] A slave (Muhammad (SAW)) when he prays?

[11] أَرَءَيتَ إِن كانَ عَلَى الهُدىٰ

[11] আরয়াইতা ইন্ কা-না ‘আলাল্ হুদা য়।

[11] আপনি কি দেখেছেন যদি সে সৎপথে থাকে।

[11] Tell me, if he (Muhammad (SAW)) is on the guidance (of Allâh)

[12] أَو أَمَرَ بِالتَّقوىٰ

[12] আও আমার বিত্তাকওয়া-।

[12] অথবা খোদাভীতি শিক্ষা দেয়।

[12] Or enjoins piety!

[13] أَرَءَيتَ إِن كَذَّبَ وَتَوَلّىٰ

[13] আরয়াইতা ইন্কায্যাবা অতাওয়াল্লা-।

[13] আপনি কি দেখেছেন, যদি সে মিথ্যারোপ করে ও মুখ ফিরিয়ে নেয়।

[13] Tell me if he (Abû Jahl) denies (the truth, i.e. this Qur’ân), and turns away?

[14] أَلَم يَعلَم بِأَنَّ اللَّهَ يَرىٰ

[14] আলাম্ ইয়া’লাম্ বিআন্নাল্লা-হা ইয়ার-।

[14] সে কি জানে না যে, আল্লাহ দেখেন?

[14] Knows he not that Allâh does see (what he does)?

[15] كَلّا لَئِن لَم يَنتَهِ لَنَسفَعًا بِالنّاصِيَةِ

[15] কাল্লা-লায়িল্লাম্ ইয়ান্তাহি লানাস্ফা‘আম্ বিন্না-ছিয়াতি

[15] কখনই নয়, যদি সে বিরত না হয়, তবে আমি মস্তকের সামনের কেশগুচ্ছ ধরে হেঁচড়াবই-

[15] Nay! If he (Abû Jahl) ceases not, We will catch him by the forelock —

[16] ناصِيَةٍ كٰذِبَةٍ خاطِئَةٍ

[16] না-ছিয়াতিন্ কা-যিবাতিন্ খত্বিয়াহ্।

[16] মিথ্যাচারী, পাপীর কেশগুচ্ছ।

[16] A lying, sinful forelock!

[17] فَليَدعُ نادِيَهُ

[17] ফাল্ ইয়াদ্‘উ না-দিয়াহূ।

[17] অতএব, সে তার সভাসদদেরকে আহবান করুক।

[17] Then, let him call upon his council (of helpers),

[18] سَنَدعُ الزَّبانِيَةَ

[18] সানাদ্‘উয্ যাবা-নিয়াতা।

[18] আমিও আহবান করব জাহান্নামের প্রহরীদেরকে

[18] We will call the guards of Hell (to deal with him)!

[19] كَلّا لا تُطِعهُ وَاسجُد وَاقتَرِب

[19] কাল্লা-; লা তুত্বি’হু অস্জুদ্ ওয়াকতারিব্।

[19] কখনই নয়, আপনি তার আনুগত্য করবেন না। আপনি সেজদা করুন ও আমার নৈকট্য অর্জন করুন।

[19] Nay! (O Muhammad (SAW))! Do not obey him (Abû Jahl). Fall prostrate and draw near to Allâh!

Leave a Reply

Close Menu